শেষ সময়ে পড়তে হবে কৌশল করে

পড়ালেখার জন্য অনেকেই ‘দৈনন্দিন রুটিন’ করে নেন। রুটিন করার সময় খুব ভালোমতো খেয়াল রাখবেন একটি কথা—আপনি কত ঘণ্টা পড়ালেখা করছেন, তার চেয়েও বড় কথা হলো আপনি ‘কীভাবে’ পড়ালেখা করছেন। আপনাকে অনেক বেশি কৌশলী হতে হবে। সারা দিন শুধু বই নিয়ে বসে থাকলেই যে পড়ালেখা ভালো হবে, এমন কিন্তু কোনো কথা নেই। রুটিনে বিশ্রামের জন্যও যথেষ্ট সুযোগ রাখতেই হবে।

★ অনেকেই মনে করেন, এই সময়ে প্রতিদিন ১২ থেকে ১৪ ঘণ্টা করে পড়াশোনা করতেই হবে। এ ব্যাপারে আমি খানিকটা ভিন্নমত পোষণ করি। আপনি প্রতিদিন কত ঘণ্টা করে পড়াশোনা করবেন, তা নির্ভর করবে সম্পূর্ণভাবে আপনার ব্যক্তিগত সামর্থ্যের ওপর। আপনি যদি অনুভব করেন, সাত থেকে ঘণ্টা পড়ালেখা করে খুব ভালোভাবে প্রস্তুতি নিতে পারছেন, তাহলে আপনার জন্য সেটাই যথেষ্ট।

★ আপনি যে বিশ্ববিদ্যালয়কে টার্গেট করে প্রস্তুতি নিচ্ছেন, ইউনিট অনুযায়ী সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের বিগত ১০ থেকে ১৫ বছরের ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নসংবলিত প্রশ্নব্যাংক বাজারে কিনতে পাওয়া যায়। কালবিলম্ব না করে এ রকম একটি প্রশ্নব্যাংক দ্রুত সংগ্রহ করে খুব ভালোমতো পড়ে ফেলুন। এতে করে কোন ভার্সিটিতে কীভাবে প্রশ্ন আসে, সে সম্পর্কে মোটামুটি একটা ধারণা হয়ে যাবে। প্রশ্নের ধরন বোঝাটাই কিন্তু সবচেয়ে বড় পরীক্ষা—এই বিষয় মাথায় রাখতে হবে। তা ছাড়া অতীত নজির থেকে দেখা যায়, প্রতিবছরই বিগত বছরের প্রশ্নাবলি থেকে দুই-তিনটা প্রশ্ন চলে আসে।

★অনেক সময় দেখা যায়, একই বিষয়ের ওপর অনেকগুলো বই কিনেছেন, কিন্তু দিন শেষে কোনোটাই ঠিকমতো রপ্ত করতে পারলেন না। এতে করে লাভের চেয়ে ক্ষতির শঙ্কাই কিন্তু বেশি থাকে। কোনো বিষয়ের ওপর মানসম্মত একটি বা দুটি বইই যথেষ্ট।

★ বিশ্ববিদ্যালয়ের আবেদন ফরম পূরণ করার সময় নিজের পছন্দের পাশাপাশি বিকল্প আরও কয়েকটি ফরম তুলে রাখুন। হয়তো আপনি ভেবেই রেখেছেন যে আপনি কোনো নির্দিষ্ট ভার্সিটিতে চান্স পাবেনই। কিন্তু দেখা গেল পরীক্ষার দিন অসুস্থতার কারণে খুব বাজে পরীক্ষা হলো। তখন বিকল্প বিশ্ববিদ্যালয়ের ফরম আগে থেকেই না পূরণ করা থাকলে হাহুতাশ করা ছাড়া কোনোই উপায় থাকবে না।

★ পড়ার টেবিলে আজ থেকে ‘দিন গণনা’ শুরু করতে পারেন।
যেমন ধরুন, আপনার কাঙ্ক্ষিত ভার্সিটির ভর্তি পরীক্ষার এক মাস সময় বাকি আছে। একটি সাদা কাগজে সিরিয়াল মতো উল্টো দিক থেকে ৩০ থেকে ১ পর্যন্ত লিখে টাঙিয়ে রাখুন এবং প্রতিদিন একটি করে দিন কাটুন। এক দিন করে যখন কমতে থাকবে, আপনি আরও বেশি করে পড়ার তাগিদ অনুভব করবেন। দেখবেন, এই কাজ আপনাকে পড়ালেখার দিকে সব সময় আকর্ষিত করবে।

Share This Article
Jobs By Category
Recent Jobs
Question Bank